Main Menu

নাসিরনগরে প্রকাশ্য রুপ নিয়েছে বিএনপির দলীয় কোন্দল

+100%-

মোঃ আব্দুল হান্নান :- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলা বিএনপিতে কোন্দল প্রকাশ্য রুপ নিয়েছে। এতদিন ঝিমিয়ে থাকা বিএনপির অপর গ্রুপটি এখন মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে শুরু করেছে। দলীয় নেতাকর্মীরা দ্বিধা বিভক্ত হয়ে পড়ছে। জানা গেছে- নাসিরনগর উপজেলা বিএনপির কমিটি গঠনের পর থেকে মতানৈক্য, অদূরদর্শিতা, প্রবীণ রাজনৈতিক নেতাদের অবজ্ঞা, পেশী শক্তি ও টাকার মহড়া নৈব্য নেতারা মনগড়া ভাবে দলীয় কর্মসূচী পালনের মধ্য দিয়ে কেন্দ্রীয় নেতাদের দৃষ্টি আর্কষণ করার চেষ্টা করছে বলে বিদ্রোহী নেতাদের অভিযোগ। যার ফলে উপজেলা বিএনপি নেতা কর্মীদের মধ্যে বিরোধ বিরাজ করছে। তাছাড়াও ২০ অক্টোবর উপজেলা যুবদলের সমাবেশে নেতাদের বক্তৃতা দেওয়াকে কেন্দ্র করে বিরোধ আরোও চাঙ্গা রুপ ধারণ করছে। জানা গেছে উপজেলা বিএনপির কমিটি গঠনের পর সাবেক সভাপতি বুড়িশ্বর ইউনিয়নের পর পর তিন বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব মোঃ ইকবাল চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট কামরুজ্জামান মামুনকে পদ বঞ্চিত করা হয়। তারপর থেকেই তারা নিরব থাকেন। সভাপতির পদ দেওয়া হয় শিল্পপতি ও কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রবাসী কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক এস এ কে একরামুজ্জামান সুখনকে। সাধারণ সম্পাদক করা হয় গোকর্ণ ইউপি চেয়ারম্যান এম এ হান্নানকে। কমিটি গঠনের পর থেকে উপজেলা বি এন পির নেতাকর্মীদের মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হতে থাকে। বর্তমান কমিটি পদ বঞ্চিত নেতাকর্মীকে তোয়াক্কা না করে তাদের নিজস্ব গতিতে দলীয় কাজকর্ম চালাতে থাকে। সম্প্রতি পদ বঞ্চিত দুই নেতা সাবেক সভাপতি বিএনপির প্রভাবশালী রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্ব মোঃ ইকবাল চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান মামুনের সাথে যোগ দেন উপজেলা বিএনপির কমিটিতে থাকা সিনিয়র সহ-সভাপতি ও কুন্ডা ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ওমরাও খাঁন। তারা ইতিমধ্যেই বিভিন্ন গ্রাম, ইউনিয়নের তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সাথে কয়েকদফা মিটিং সমাবেশ করেছেন। তারা জানান- তাদের সাথে বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি সাধারণ সম্পাদক সহ তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সাথে তারা ইতিমধ্যে যোগাযোগ সম্পন্ন করেছে। তারা যেকোনো সময় উপজেলা পর্যায়ে বিএনপির সমাবেশের ডাক দিবেন বলে জানান এ ত্যাগী নেতারা।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares