Main Menu

ফলোআপ : নাসিরনগরে দু-দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে জে এস সি পরীক্ষার্থী খুন-নেপথ্যে জমি দখল

+100%-

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর:  হাওড় অঞ্চলে জমি দখলকে কেন্দ্র করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলায় পূর্ব বিরোধ ও মামলা মোকদ্দমার জের ধরে দু-দল গ্রামবাসী জেএসসি পরীক্ষার্থী এক স্কুল ছাত্র খুন হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার বেলা ২ঘটিকায় উপজেলা সদর ইউনিয়নের দাঁতমন্ডল গ্রামে। ঘটনার বিবরণে জানা গেছে মেদির হাওড়ে ৩৭৪ ও ৩১১ এস এ খতিয়ানের ৭৭ একর জায়গা নিয়ে শাহ আব্দুল্লাহ কল্যাণ ট্রাস্টের পক্ষে সৈয়দ আবু এমাদ ও দাঁতমন্ডল গ্রামবাসীর মাঝে দীর্ঘদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে শনিবার সকাল সকাল ১২ঘটিকায় আবু এমাদ ও তার ভাই মাওলানা আসিক বিল্লার মরিদানের লোকজন  দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে হাওড়ে জমি দখলের প্রস্তুতি নেয়। ওই সময় খবর পেয়ে দাঁতমন্ডল গ্রামবাসীও দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে জমি উদ্ধারের চেষ্ঠা চালায়। দুই পক্ষই যখন হাওড়ে রন প্রস্তুতি নেয় পুলিশ গিয়ে তখন নিয়ন্ত্রণে আনে। হাওড়ে সংঘর্ষের সময় আবু এমাদের সাথে দাঁতমন্ডল গ্রামের গোলাম আলীর কিছু লোকজন,গোকর্ণ ইউনিয়নের সূচীউড়া,জেঠাগ্রাম,কুলিকুন্ডা,নাছিরপুরের বেশ কিছু লোকজন অংশ নেয়। হাওড়ে সংঘর্ষ করতে ব্যর্থ হয়ে সংঘর্ষকারীরা দাঁতমন্ডল গ্রামে হামলা চালিয়ে জুয়াদ মিয়ার ছেলে জেএসসি পরীক্ষার্থী মোঃ খালেক মিয়া (১৫) র উপর চড়াও হয়। হামলাকারীদের হাতে থাকা লোহার পল দিয়ে খালেক মিয়াকে ঘাই মারলে ঘটনাস্থলে তার মৃত্যু হয়।  সংঘর্ষে সামসু মিয়া ৫০,সাজু মিয়া ৬০,ছুর রহমান ৫১,রুবেল মিয়া ১৮,হাসান মিয়া ১৩, আওয়াল ৬০,ইব্রাহিম ৪০ আহত হয়। আহতদের মাঝে মোঃ সামসু মিয়া ৫০ কে মুমুর্ষ অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। অন্যদের নাসিরনগর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। ওই ঘটনায় রবিবার ছুরু রহমান বাদী হয়ে ৮২জনকে আসামী করে নাসিরনগর থানায় হত্যা মামলা রুজু করেন। মামলার বাদী ছুরু রহমান ও ছালু মিয়া এ প্রতিনিধিকে জানান তাদের বাপ দাদার সম্পত্তি নাছিরপুর গ্রামের ভূমি খেখো সৈয়দ আবু এমাদ তার শাহ আব্দুল্লাহ কল্যাণ ট্রাষ্টের নামে দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধভাবে দখলে নেয়ার চেষ্ঠা চালায়। ওই দিনও পূর্ব পরিকল্পিত ভাবে জমি দখলের চেষ্ঠা চালালে গ্রাম বাসী তাদের পৈত্রিক সম্পত্তি উদ্ধারে যায়।  পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩জনকে গ্রেপÍার করেছে।  লাশের ময়না তদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেরণ করেছে। নাসিরনগর থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আব্দুল কাদের ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares