Main Menu

সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত চেয়ারম্যানের জানাযা ও দাফন সম্পন্ন, এলাকায় শোকের ছায়া

+100%-

সড়ক দুঘর্টনায় নিহত নাসিরনগরের ভলাকুট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এস.এম বাকি বিল্লাহ্ জুয়েলের জানাযা ও দাফন সম্পন্ন হয়েছে। বুধবার বিকেলে স্থানীয় ঈদগাহ ময়দানে জানাযা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়। ভারি বৃষ্টিপাত উপেক্ষা করে জানাযায় অংশ নেয় অনেক মানুষ। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ লিয়াকত আলী, থানার অফিসার ইনর্চাজ মোঃ আবু জাফর, জেলা পরিষদ সদস্য মোঃ আসাদুজ্জামান চৌধুরী, আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, সাংবাদিক, এলাকার গণ্যমান্য, রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গরা সহ সর্বস্তরের লোকজন উপস্থিত ছিলেন। তার অকাল মৃত্যুতে এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

উল্লেখ্য, ৪এপ্রিল মঙ্গলবার রাত সাড়ে দশটার দিকে আশুগঞ্জ থেকে মোটর সাইকেল যোগে চেয়ারম্যান জুয়েল, তার বন্ধু ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা ছাত্র দলের যুগ্ন আহবায়ক শিমরাইল কান্দি গ্রামের হাবিবুর রহমানের ছেলে রনি ভূইয়া ও খাগালিয়া গ্রামের মোঃ শাহ আলম মিয়াকে নিয়ে নাসিরনগরের উদ্দেশ্যে রওনা দেয়। সরাইল শান্তিনগর এলাকায় আসা মাত্রই বিপরীত দিক থেকে আসা একটি মাল বোঝাই ট্রাক তাদের চাপা দেয়। এতে রনি ও জুয়েলের মৃত্যু হয়।

জুয়েল বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ নাসিরনগর উপজেলা শাখার সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ছিলেন। তিনি বাংলাদেশের ১ম সর্ব কনিষ্ঠ চেয়ারম্যান। ২০১১ সালে এস.এম বাকি বিল্লাহ্ জুয়েল চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। তার বাবা মৃত ধনু মিয়া মাস্টার ও মা হেনা বেগম দুই জনই ছিলেন এলাকার সুনামধন্য চেয়ারম্যান। ধনু মিয়া ১৯৯৪ সাল থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত ভলাকুট ইউপির চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি সন্ত্রাসীদের হাতে গভীর রাতে নিজ বাড়িতে খুন হন। ২০০৪ হতে ২০১১ সাল পর্যন্ত তার স্ত্রী হেনা বেগম অত্র ইউপির চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares