Main Menu

নাসিরনগরে নিরপরাধ ব্যক্তিকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেয়ায় এ.এস.আই প্রত্যাহার।

+100%-

এম.ডি.মুরাদ মৃধা, নাসিরনগর সংবাদদাতাঃ নিরাপরাধ ব্যক্তিকে ইয়াবা দিয়ে ফাঁসিয়ে দেয়ার অভিযোগ প্রথমিক ভাবে প্রমানিত হওয়ায় নাসিরনগর থানার এ.এস.আই মো: মাহিন উদ্দিনকে পুলিশ লাইনে প্রত্যাহার করা হয়েছে। এ.এস.আই মাহিনের বিরুদ্ধে উঠা অভিযোগ প্রাথমিক ভাবে সত্যতা পাওয়ায় রবিবার ৩০/০৪/২০১৭খ্রি: এ ব্যবস্থা নেয়া হয়।

স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার নাসিরনগর উপজেলার ধরমন্ডল ইউনিয়ন হতে ইয়াবাসহ জাবেদ ও উজ্জল মিয়া নামে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করে ধরনমন্ডলের অস্থায়ী পুলিশ ক্যাম্পের এ.এস.আই মো: মাহিন উদ্দিন। তারা স্থানীয় চেয়ারম্যানের আত্মীয় পরিচয় দেয়ায় তাদের টাকার বিনিময়ে ছেড়ে দেয় এ.এস.আই মাহিন। পরে এলাকায় জানা জানি হয়ে গেলে জনরোষ হতে বাচতে নিরাপরাদ অলিন মিয়াকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের হাতে থাকা ইয়াবা দিয়ে থানায় নিয়ে আসে।

এ ব্যপারে ধরমন্ডল ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যন মো: আব্দুল হাই বলেন, কিছু কছু জনপ্রতিিধি ও নেতাদের  অত্যাচারে এলাকাবাসী অতিষ্ঠ। তাদের বিরুদ্ধে কথা বল্লেই বিভিন্ন মামলা কিংবা ইয়াবা দিয়ে গ্রেপ্তার করিয়ে হয়রানি করছে। তিনি আরো বলেন কিছুদিন আগে নাসিরনগর থানার ওসি মো: আবু জাফর অবৈধ কাজ করতে রাজি না হওয়ায় তাকে বদলী করার হুমকী দেয়।

অলিনের গ্রেপ্তারের বিষয়টি স্থানীয় এলাকাবাসী ভাল ভাবে নিতে পারেনি। তাই তারা এলাকার লোকজন নিয়ে পুলিশের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করে। অভিযোগের প্রেক্ষিতে সহকারি পুলিশ সুপার(সরাইল সার্কেল) মো: মনিরুজ্জামান ফকির ঘটনার তদন্ত করে সত্যতা পেলে পুলিশের উর্ধবতন কর্তৃপক্ষ তাকে ক্লোজ করে জেলা পুলিশ লাইনে নেয়া হয়।

এ ব্যপারে নাসিরনগর থানার ওসি মো: আবু জাফর বলেন, আমরা জনগনের সেবক। কারো নির্দেশে অন্যায় করতে আসিনি। অপরাধী যেই হোক শাস্তি তাকে পেতেই হবে। এবং এ.এস.আই মাহিনের প্রত্যাহারের বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করেন।

সহকারী পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) মো. মনিরুজ্জামান ফকির গনমাধ্যমকে জানান, এসআই মাহিন উদ্দিনের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের প্রাথমিক সত্যতা পাওয়া যায়। রবিবার তাকে ক্লোজ করে জেলা পুলিশ লাইনে নিয়ে আসা হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares