Main Menu

নাসিরনগরে দুর্বৃত্তের আগুনে প্রাণ গেল ৫টি গরুর

+100%-


নিজস্ব প্রতিবেদক:: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে মনিন্ড বিশ্বাস নামে এক কৃষকের গোয়াল ঘরে আগুন দিয়ে ৫টি গরুর প্রাণ কেড়ে নিল দুর্বৃত্তরা। এ সময় তার খড়ের গাদাও আগুনে পুড়িয়ে দেয়। এতে কৃষকের প্রায় ৬ লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক। এখন ওই কৃষক পরিবারটি সবকিছু হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছে। বন্ধ হয়ে গেছে তাদের আয়ের একমাত্র পথ।
ঘটনাটি ঘটেছে গত শনিবার রাত বারটার সময়। ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক মনিন্ড চন্দ্র বিশ্বাস ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার গোয়ালনগর ইউনিয়নের ভিডাডুপি গ্রামের বাসিন্দা। ঘটনার ১৬ ঘন্টা পেরিয়ে গেলেও উপজেলা প্রশাসন,স্থানীয় প্রশাসনসহ পুলিশের কোন কর্তৃপক্ষ তাদের খুজ খবর নেয়নি বলে জানান মনিন্ড বিশ্বাসের ছেলে স্বপন বিশ্বাস।
মনিন্ড বিশ্বাসের ছেলে স্বপনের সাথে কথা হলে তিনি জানান,গতকাল রাইত(রাত) পোনে বারটার সময় আমি গোয়লঘরে তালা দিয়ে ঘুমাইতে যাই। ঘুমানুর একটু পরেই পাশের বাড়ির লোকজনের চিৎকারে আমি ঘুম থেইক্যা ওঠ্যা যাই। পরে দেখি আমার ঘরে আগুন লাগছে। আমি ঘরে ডুইক্যাই দেখি আমার পাঁচটা গরু পুইড়া ছাই হইয়া গেছে। পাশে আমার গরুর খাবার (খড়ের গাদা) আগুন দিয়া পুড়াই দিছে। তিনি আরো বলেন, আমরা এহন কি নিয়া বাচুম! গরুর দুধ বেইচ্চা আমরার সংসার চলত। কে বা কাহার আগুন দিয়েছে সেটা বলতে পারছে না। তবে পাশের বাড়ির লোকজনদের সাথে তাদের পারিবারিক বিরোধের কথা জানিয়েছে।
আগুনের বিষয়ে কথা হয় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুল কবিরের সাথে। তিনি বলেন,আমাকে কেউ এ বিষয়ে অবগত করেনি। বিস্তারিত জেনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।
ভিডাডুপি গ্রামের ৫ নং ওয়ার্ড মেম্বার ইন্দ্রজিৎ বিশ্বাস বলেন,হঠাৎ রাত বারটার দিকে মানুষের চিৎকারে ঘুম থেকে জেগে ওঠি। সবাই বলছিল মনিন্ড বিশ্বাসের গোয়ালঘরে আগুন দিছে। সেখানে ছুটে যায়। সবাই মিলে আগুন নেভানোর চেষ্টা করি। কিন্তু আগুন নেভানোর আগেই পুড়ে মারা যায় তার ৫টি পালিত গরু,গোয়ালঘর ও খড়ের গাদা। তবে এখন পর্যন্ত থানায় কোন মামলা করা হয়নি।
নাসিরনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) সাজেদুর রহমান জানান, ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক পরিবার আমাদের কাছে এখনো আসেনি। আমাদের কাছে আসলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares