Main Menu

নাসিরনগরে এসিল্যন্ডের স্বাক্ষর জাল করে ভূয়া নামজারী তৈরীর অভিযোগ।

+100%-

এম.ডি.মুরাদ মৃধা, নাসিরনগর হতে :: নাসিরনগরে ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ও সার্ভেয়ারের বিরুদ্ধে এসিল্যান্ডের স্বাক্ষর জাল করে জায়গা নামজারি করে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল রাজ্জাক ও সার্ভেয়ার আকলিমা বেগম আর্থিক সুবিধা নিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ এমন কাজ করছেন বলে অভিযোগ আছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক নাসিরনগর উপজেলা ভূমি অফিসের একাধিক কর্মচারী অভিযোগ করে বলেন, আমাদের অফিসের সার্ভেয়ার টাকা ছাড়া কোন কাজ করেন না। গ্রাহকদের বিভিন্ন নথি ইচ্ছাকৃত ভাবে হারিয়ে টাকার বিনিময়ে নতুন করে তৈরি করে দেন। অফিসের সকল কর্মচারীদের সাথে খারাপ আচরণ সহ বিভিন্ন ভাবে হয়রানি করেন বলেও জানান তারা ।

অনুসন্ধানে দেখা গেছে, উপজেলার ফান্দাউক ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল রাজ্জাক ও সার্ভেয়ার আকলিমা বেগম আর্থিক সুবিধা নিয়ে আতুকোড়া গ্রামের তাছলিমা ইসলাম,পিতা-আলী আহম্মদ, আতোকুড়া মৌজার জেএল নং ৮১, এস,এ খতিয়ান নং-২৬৬, এস,এ দাগ নং-১৫১১, ৭ শতক নাল ভূমি নামজারী জমাখারিজ মোকদ্দমা নং ১৬৭০, ২০১৭-১৮ মূলে গত ২২ এপ্রিলের আবেদনের প্রেক্ষিতে ফান্দাউক ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার অফিসের রেজিষ্ট্রারে ৯০৫নং তামিল জোত ও ৮৯০নং খতিয়ানে রেজিষ্ট্্িরভুক্ত দেখানো হয়। উল্লেখ্য যে, ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক ৩০ মে প্রস্তাবিত খতিয়ান সহকা্ের উপজেলা ভূমিঅফিসে প্রতিবেদন দাখিল করে নামজারী জমাখারিজের সুপারিশ করলে কাগজ পত্রে মিল না থাকায় উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি)(তৎকালীন) উম্মে সালমা ৯মে উক্ত নামজারি জমাখারিজটি বাতিল ঘোষণা করেন।

আবেদনটি বাতিল হওয়ার পর ৭ মে সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসে কর্মরত সার্ভেয়ার আকলিমা বেগম স্বাক্ষরিত নামজারী জমা খারিজটির সরকারি ফি বা ডি,সি,আর ১১৫০ টাকা জমা দেখিয়ে উক্ত মোকদ্দমাটি অনুমোদন করেন। যাহা ফান্দাউক ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার অফিসের রেজিষ্ট্রারে ৯০৫নং তামিল জোত ও ৮৯০নং খতিয়ানে রেজিষ্ট্রীভুক্ত আছে। অনুসন্ধানে দেখা যায় ৯মে সহকারী কমিশনার(ভূমি) উম্মে সালমা নামজারি মোকদ্দমাটি বাতিল করার পুনরায় ৭মে ২০১৮ তারিখ দেখিয়ে বাতিলকৃত জমা খারিজটির স্বাক্ষর জাল করে বৈধ করেন ফান্দাউক ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুল রাজ্জাক ও সার্ভেয়ার আকলিমা বেগমের যোগশাজসে।

তাছাড়াও ফান্দাউক ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ভূমি উন্নয়ন কর রশিদ নং- জে ০০২৫০২ দ্বারা ১৩৯৮ বাংলা সন হতে ১৪২৫ বাংলা বিবিধ বাবদ ২৮০ টাকা আদায় করে রশিদ প্রদান করেন। ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা ও সার্ভেয়ারের জালিয়াতির মাধ্যমে প্রস্তাবিত নামজারী ও জমাখারিজটি সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে নাসিরনগর সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসে দলিল সম্পাদন করতে গেলে কর্তব্যরত সাব-রেজিষ্ট্রার নামজারি জমাখারিজটি জাল বুঝতে পেরে দলিলটি আটকে দেয়।

জানা গেছে কিছ ুদিন পূর্বে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসক, নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি), ফান্দাউক ই্উনিয়ন ভুমি অফিস পরিদর্শনে গেলে স্থানীয় লোকজন সহকারী ইউনিয়ন ভুমি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুর রাজ্জাকের বিরুদ্ধে তার অনিয়ম দুর্নীতির অসংখ্য মৌখিক অভিযোগ তুলে ধরেন।

এ বিষয়ে ফান্দাউক ইউনিয়ন ভূমি কর্মকর্তা আব্দুর রাজ্জাক ও সার্ভেয়ার আকলিমা বেগমের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে জাল স্বাক্ষরের বিষয়টি সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা কথা বলতে ইচ্ছুক নয় বলে জানা।

এ বিষয়ে সহকারী কমিশনার(ভূমি)’র দায়িত্বে থাকা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ মাসউদ পারভেজ মজুমদারের সাথে কথা হলে তিনি জানান, অভিযুক্তদের আমি ডেকেছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইগত কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares