Main Menu

সড়কের পাশে তরুনীর লাশ

+100%-

মাসুদ, সরাইল থেকে: সরাইলে এক তরুনীর লাশ পাওয়া গেছে। তার নাম ফারজানা আক্তার ময়না(১৯)। সে পাকশিমুল ইউনিয়নের কালীশিমুল গ্রামের নূরুল ইসলামের মেয়ে। আজ মঙ্গলবার সকালে সরাইল-অরুয়াইল সড়কের কালীশিমুল গ্রামের গোরস্থানের পাশে ময়নার লাশ পড়ে থাকতে দেখে গ্রামের মানুষ। এরপর পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে। লাশের সুরতহালকারী পুলিশ কর্মকর্তা সাব ইন্সপেক্টর ফরহাদ আব্বাস জানিয়েছেন মৃতদেহের থুতনিতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নার পরিবারের সদস্যরাও নিশ্চিত করে বলতে পারছেননা কিভাবে তার মৃত্যু হলো। জানা গেছে, পিতা নূরুল ইসলাম, ময়না আর তার এক ছোট বোন একই ঘরে থাকতেন। সোমবার রাতে গ্রামে মেলা জমেছিল। সেখানে ছিল বাউল গান। ময়নার বাবা মেলা থেকে গভীররাতে বাড়ি ফিরে মেয়ের খোজ না করেই ঘুমিয়ে পড়েন। সকালে খবর পান তার মেয়ের লাশ কবরস্থানের পাশে পড়ে রয়েছে। ময়নার ভাই মাওলানা দেলোয়ার হোসেন জানিয়েছেন ৩ মাস আগে ময়নাকে একবার অপহরন করা হয়েছিল। এই অপহরনের নায়ক ছিলো চুন্টা ইউনিয়নের লোপাড়া গ্রামের আলফাজ মিয়া। তখন থানায় সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছিল। ময়নার এখনকার পরিণতির জন্যে আলফাজকেই সন্দেহ করছে দেলোয়ার। অপহরন করে নেয়ার ১২ দিন পর সরাইল থেকে পরিবারের সদস্যদেরকে ফোন করে নিজের অবস্থান জানিয়েছিল ময়না। তখন পরিবারের সদস্যরা তাকে উদ্ধার করে। কিন্তু সে কিভাবে অপহ্নত হয়েছিল, কারা তাকে অপহরন করেছিল এসবের কিছুই তখন জানাতে পারেনি সে। ময়নার মা নেই। ঘরে সৎ মা। ক’দিন আগে সৎ মা বকুল নেছা তার ৫ মাসের সন্তান নিয়ে স্বামীর বাড়ি ছেড়ে চলে যান।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares