Main Menu

সরাইলে প্রকল্পের চেক জালিয়াতি করে ব্যাংক থেকে টাকা উত্তোলন

+100%-

মোহাম্মদ মাসুদ: সরাইলে “একটি বাড়ি, একটি খামার” প্রকল্পে চেক জালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে সমিতির সদস্যদের কাছ থেকে টাকা আদায়ের ঘটনা ঘটেছে। নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপে চেক জালিয়াতকারক ও প্রতারক মুছলেকার মাধ্যমে টাকা ফেরত দিতে বাধ্য হয়েছে। নির্বাহী কর্মকর্তার দফতর সূত্রে জানা যায়, উপজেলার কালিকচ্ছ গ্রাম উন্নয়ন সমিতির সদস্যা স্কুল শিক্ষিকা মিনু রাণী দেবের অনুকূলে প্রকল্প থেকে বিশ হাজার টাকা ঋন মঞ্জুর হয়। কৌশলে ওই চেকটি হস্তগত করেন নতুন হাবলী গ্রাম উন্নয়ন সমিতির ব্যবস্থাপক রাকিবুল ইসলাম ঠাকুর। তিনি চেকের উল্টোপিঠে স্বাক্ষর জানা মহিলার টিপসহি দেখিয়ে শ্যামল দেবের নামে নিং বং করেন। পরে নিজে স্বাক্ষর করে সরাইল সোনালী ব্যাংক থেকে বিশ হাজার টাকা উত্তোলন করে ফেলেন। ওদিকে নিজ সরাইল গ্রাম উন্নয়ন সমিতির ব্যবস্থাপক মোঃ ইমরান মিয়া ঋন দেওয়ার মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে নিজ সমিতির আট সদস্যের কাছ থেকে ১১ হাজার ৪‘শ টাকা হাতিয়ে নেন। ভুক্তভোগী লোকজন উভয় বিষয় নির্বাহী কর্মকর্তাকে লিখিত ভাবে অবহিত করেন। প্রকল্পের উপজেলা কমিটির সভাপতি ও নির্বাহী কর্মকর্তা বিষয় দু’টি তদন্ত করে সত্যতা নিশ্চিত হন। পরে অভিযুক্ত দুই ব্যাক্তিকে তার দফতরে ডেকে এনে মুছলেকা রেখে অভিযোগকারীদের টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করেন। প্রকল্পের উপজেলা সমন্বয়কারী মাসুকা আক্তার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সংগঠনের ম্যানেজার যদি এমন জালিয়াতি করে প্রকল্প চালাব কিভাবে। এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত ব্যবস্থাপক রাকিবুল ও ইমরানের মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ এমরান হোসেন দুই ব্যবস্থাপক কর্তৃক জালিয়াতি ও প্রতারনার মাধ্যমে টাকা আত্মসাৎ পরে দায় স্বীকার করে টাকা ফেরত দেয়ার ঘটনা স্বীকার করে বলেন, এ ধরনের হীন ও অসৎ কিছু লোকের জন্য সরকারের মহৎ উদ্যেশ্য বাস্তবায়নে সমস্যা হয়।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares