Main Menu

সরাইল থানার দারোগার কান্ড! জামিনের আসামীকে গ্রেপ্তারের পর পিটিয়ে গুরুতর আহত

+100%-

প্রতিনিধিঃ সরাইলে আদালত থেকে জামিনে থাকা আবু মিয়া (২৫) নামের এক আসামীকে সোমবার রাতে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। আবু মিয়া সৈয়দটুলা গ্রামের গড়েরপাড় এলাকার এবাদ উল্লাহর ছেলে। গ্রেপ্তারের পর থানায় নিয়ে তাকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে পুলিশ। আহত আবুকে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও আবুর পারিবারিক সূত্র জানায়, গত সোমবার রাত নয়টায় এস আই আবু বক্কর সিদ্দিক সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে আবুকে গ্রেপ্তার করতে তার বাড়িতে যায়। আবু তখন জামিনে থাকার কথা পুলিশকে জানায়। তারপরও পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়। থানায় নিয়ে আবুকে বেধড়ক পেটায়।  গুরুতর আহত অবস্থায় আবুকে সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। অবস্থার অবনতি দেখে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়। আবুর পরিবারের অভিযোগ, মোটা অংকের টাকার চুক্তি করে পুলিশ জামিনে থাকার পরও আবুকে গ্রেপ্তার করেছে। তাকে চোরাই মাইর দিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থান গুরুতর আহত করা হয়েছে। আঘাত করা হয়েছে তার মেরুদন্ডে। বর্তমানে আবু জেলা সদর হাসপাতালের বিছানায় যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে। একই রাতে এস আই সিদ্দিক জামিনের আসামী কুট্রাপাড়া গ্রামের বাসিন্ধা ওয়াসিম কে (৩৩) গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে যায়। বাড়ির লোকজন রিকল নিয়ে থানায় আসতেছে বলার পরও তাকে কাষ্টরিতে ঢুকিয়ে দেয়া হয়। এক ঘন্টা পর রিকল পেয়ে ওয়াসিমকে থানা হাজত থেকে বের করে ছাড়তে বাধ্য হয় পুলিশ।

এস আই আবু বক্কর সিদ্দিক আবু মিয়া ও ওয়াসিম জামিনে থাকার কথা স্বীকার করে বলেন, আমি কাউকে ফুলের ঠোকনিও দেয়নি।

প্রসঙ্গত: দীর্ঘদিন পূর্বে গড়েরপাড় এলাকায় দু’গোষ্টীর লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছিল। এ ঘটনায় মিজান মিয়া বাদী হয়ে একটি মামলা করেছিলেন। আবু মিয়া ওই মামলার জামিনে থাকা আসামী।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares