Main Menu

সরাইলে নৌকার মাঝি হতে বুদ্ধিজীবির সন্তানের সাংবাদিক সম্মেলন

+100%-

মোহাম্মদ মাসুদ, সরাইল ॥ আওয়ামীলীগের সভানেত্রী জাতির জনকের কন্যা শেখ হাসিনা শহীদ মুক্তিযোদ্ধা ও বুদ্ধিজীবিদের সন্তানদের গুরুত্ব দিচ্ছেন, ঠিক সেই সময়ে সরাইলের সন্তান শহীদ বুদ্ধিজীবি সৈয়দ আকবর হোসেন বকুল মিয়ার ছেলে অ্যাডভোকেট সৈয়দ তানবির হোসেন কাউছার আওয়ামীলীগ দলীয় মনোনয়ন চাওয়ার ঘোষনা দিয়েছেন।

আজ বিকেলে তিনি সরাইলের বিশ্বরোড মোড়ের রশিদ মার্কেটের দ্বিতীয় তলায় এক সাংবাদিক সম্মেলনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনয়ন চাওয়ার ও পাওয়ার শতভাগ নিশ্চয়তার ঘোষনা দিয়েছেন।

দৈনিক মানবজমিনের সরাইল প্রতিনিধি মোহাম্মদ মাহবুব খান বাবুল ও আশুগঞ্জ প্রেসক্লাবের সম্পাদক মোঃ ছাদেকুল ইসলাম সাচ্চুর সঞ্চালনায় এবং সরাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ আইয়ুব খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সাংবাদিক সম্মেলনে সৈয়দ তানবির বলেন, আমি আওয়ামীলীগ তথা দেশের জন্য জীবন উৎসর্গকারী শহীদ পরিবারের সন্তান। আমার পিতা ১৯৫৫ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া কলেজ ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য ছিলেন। পরবর্তীতে আওয়ামীলীগ ঢাকা মগবাজার শাখার সহ সভাপতি ও ঢাকা বার এর সদস্য হন। এক সময় তিনি বৃহত্তর কুমিল্লা জেলা আওয়ামীলীগের সম্মানিত সদস্য পদ পান। ১৯৭১ সালের মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতার পক্ষে কাজ করায় পাক বাহিনী আমার বাবা আকবর হোসেন ও ছোট চাচা সৈয়দ আফজাল হোসেনকে বাড়ি থেকে ধরে নিয়ে কুরুলিয়া খালপাড়ে নির্মম ভাবে হত্যা করেন। অল্প বয়সে বিধবার শাড়ি পড়েন আমার মা। আমরা ভাই বোন দুনিয়া সম্পর্কে কিছু বুঝে উঠার আগেই এতিম হয়ে যায়। অনেক কষ্টে মা আমাদেরকে মানুষ করেছেন। আমার বাবা চাচা সহ ৬ জনের নামে ঢাকা বার এর সামনে ‘হৃদয়ে বালাদেশ’ স্মৃতিফলক ও ১৯৯৮ সালে বাংলাদেশ ডাক বিভাগ আমার প্রয়াত পিতার নামে ‘স্মারক ডাক টিকেট’ উম্মোচন করা হয়। সুভাগ্যক্রমে আমি সেই পিতারই সন্তান। আমি বর্তমানে শহীদ পরিবারের প্রতি দেশরত্ন শেখ হাসিনা’র সহাসুভূতি ভালবাসা ও মূল্যায়নের অনেক উজ্জল দৃষ্টান্ত রয়েছে। আমাদের বেলায় ও এর ব্যতিক্রম হবে না বলে বিশ্বাস। যে দেশের জন্য বাবা দিয়েছেন জীবন। আমি সেই দেশের মাটি ও মানুষের জন্য কিছু করতে চাই। এ লক্ষ্যে আমি দীর্ঘদিন ধরে ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ২ আসনের দলীয় সকল নেতাকর্মী ও সাধারন মানুষের সাথে কাজ করে যাচ্ছি। আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এ আসন থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী। আমি আশাবাদী বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য উত্তরসূরি জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ফিরিয়ে দেবেন না। মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়ে আমি সকল সাংবাদিক ও সাধারন মানুষের সার্বিক সহযোগীতা চাই।

সাংবাদিক সম্মেলনকে ঘিরে দুপুর ১টা থেকেই ২ উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন থেকে আ’লীগ, যুবলীগ সহ দলের অঙ্গসংগঠনের নেতা কর্মীরা জড়ো হতে থাকেন। সম্মেলন পূর্ব আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন-আ’লীগ নেতা মোঃ কুতুব উদ্দিন ভূঁইয়া, অ্যাডভোকেট ওসমান গণি, মোঃ শফিকুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা জিয়াউল হক জজ মিয়া, মোঃ দেলোয়ার হোসেন, মোঃ ইকবাল হোসেন, শ্রমিকলীগ নেতা মোঃ ইনু মিয়া ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা অ্যাডভোকেট বেলায়েত হোসেন মিল্লাত। বক্তারা বলেন, আমরা দীর্ঘদিন ধরে দলীয় প্রার্থী থেকে বঞ্চিত। আগামী নির্বাচনে আমরা শহীদ পরিবারের সন্তান অ্যাডভোকেট সৈয়দ তানবির হোসেন কাউছারকে ব্রাহ্শণবাড়িয়া-২ আসনে আ’লীগের প্রার্থী চাই।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares