Main Menu

নৈশ প্রহরী রেখেই সরাইল হাসপাতালে চুরি!

+100%-

মোহাম্মদ মাসুদ, সরাইল ॥ দুইজন নৈশ প্রহরী রেখেই সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দ্বিতীয় তলায় পরিবার পরিকল্পনা বিভাগে চুরি হয়েছে। গত বৃহস্পতিবার থেকে শনিবার যে কোন সময় হাসপাতালের পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের একটি কক্ষে এ চুরির ঘটনা ঘটেছে। চারিদিকের ক্লাক্সিবল গেইটের তালা ঠিক রেখে কিভাবে ভেতরে প্রবেশ করে শুধু ওই কক্ষের তালা কেটে ফেলল চুরেরা ? এ প্রশ্নই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে সবার মধ্যে। হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের নিরাপত্তার দায়িত্বে রয়েছেন দুইজন প্রহরী।

গত বৃহস্পতিবার কাজ শেষে সকলেই অন্যান্য দিনের মত তালা দিয়ে চলে যায়। গতকাল রোববার অফিসে প্রবেশ করে দেখেন কলাপসিবল গেইটের তালা ঠিকই আছে। অথচ অফিস কক্ষের তালা কাটা। পশ্চিম পাশের ইপিআই কক্ষেরও তালা কাটা। কলাপসিবল গেইটের তালা না ভেঙ্গে তো অফিসে প্রবেশের কোন ব্যবস্থাই নেই। ষ্টীলের আলমিরা খোলা। টেবিলের উপর কম্পিউটার নেই, প্রিন্টার নেই। নেই ইন্টারনেট ব্রডব্যান্ডের মেশিনটি। সব মিলিয়ে অর্ধলক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে গেছে চুরে। পরিবার পরিকল্পনা সহকারি মো. সারোয়ার আলম খান বলেন, কলাপসিবল গেইটের তালা ঠিক রেখে এখানে আসা অসম্ভব। বাহির থেকে চুর এই কক্ষে কিভাবে প্রবেশ করবে?

নৈশ প্রহরী গোলাপ মিয়া বলেন, সকাল ৮টায় ডিউটি ছেড়ে এসেছি। আমার দায়িত্ব নিচে উপরে নয়। আমি রাতে কোথাও কোন শব্দ পায়নি। চুরির বিষয়ে কিছুই জানি না।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হাসপাতালের একাধিক লোক বলেন, নৈশ প্রহরী ও ব্রাদাররা রাতে জরুরী বিভাগে চিকিৎসার দায়িত্বে থাকেন। আর চিকিৎসক ঘুমান। চুরি হলে তারা বুঝবে কিভাবে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. কাজী আইনুল হক বলেন, সকল দিকে তালাবদ্ধ ছিল। মাঝখানে কিভাবে প্রবেশ করে একটি কক্ষের তালা কাটল? বিষয়টি বুঝতে পারছি না। এ বিষয়ে সরাইল থানায় জিডি করেছি।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares