Main Menu

চাঁদপুরে অনুষ্ঠিত বৃহত্তর কুমিল্লার গণসঙ্গীত উৎসবে অংশ নিয়েছে আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন

+100%-

শুক্র ও শনিবার চাঁদপুরে অনুষ্ঠিত হয়েছে বৃহত্তর কুমিল্লা জেলা গণসঙ্গীত উৎসব।বাংলাদেশ গণসঙ্গীত সমন্বয় পরিষদ এর আয়োজনে ও বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর সহায়তায় গত শুক্রবার বিকালে চাঁদপুর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে এ উৎসব উদ্ধোধন করেন সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা.দীপু মনি এমপি।

উপমহাদেশের প্রখ্যাত গণসঙ্গীতশিল্পী ও বাংলাদেশ গণসঙ্গীত সমন্বয় পরিষদের সভাপতি ফকির আলমগীরের সভাপতিত্বে এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সহসভাপতি গোলাম কুদ্দুছ,মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও সাংস্কৃতিক সংগঠক নাজমুল হোসেন পাখি,চাঁদপুরের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জীবন কানাই চক্রবর্তী,স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা ও অব.সিভিল সার্জন ডা.সৈয়দা বদরুন্নাহার।

স্বাগত ভাষন দেন গণসঙ্গীত উৎসবের আহবায়ক রূপালী চম্পক।সদস্য সচিব শরীফ চৌধুরীর উপস্থাপনায় শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন গণসঙ্গীত উৎসবের যুগ্ম-আহবায়ক চাঁদপুরের রফিক আহমেদ মিন্টু,ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সাংস্কৃতিক সংগঠক,বাচিকশিল্পী মো.মনির হোসেন।উৎসবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া,কুমিল্লা,চাঁদপুরের ১৩ টি গণসঙ্গীতের দল অংশ নেয়।এরমধ্যে সুর স¤্রাট আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন সম্পাদক কবি আবদুল মান্নান সরকারের নেতৃত্বে ৮ সদস্যের একটি দল উৎসবে যোগ দেয়।উদ্ধোধনী দিনের শুরুতেই ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সুর সম্রাট আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন ৫ টি সমবেত গণসঙ্গীত পরিবেশন করেন।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার দলের পরিবেশনা শেষে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ডা.দীপু মনি এমপি,গণসঙ্গীতশিল্পী ফকির আলমগীর,সাংস্কৃতিক সংগঠক গোলাম কুদ্দুছ,নাজমুল হাসান পাখি সহ অতিথিরা এ দলের গণসঙ্গীতের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং শিল্পীদের আনুষ্ঠানিক ধন্যবাদ জানান।এসময় সঙ্গীত পরিচালনায় ছিলেন সঙ্গীত প্রশিক্ষক পাপিয়া চৌধুরী।শিল্পীদের মধ্যে ছিলেন সরকার ফরিদ উদ্দিন,জয়নাল আবেদীন,বিপ্লব দাস,ফাইরোজ আতকিয়া প্রমি,সীমা বর্মণ,মারিয়া রাফা।তবলায় ছিলেন বাবুল মালাকার।অনুষ্ঠানে প্রখ্যাত গণসঙ্গীতশিল্পী ফকির আলমগীর সুর সম্রাট আলাউদ্দিন সঙ্গীতাঙ্গন সম্পাদক কবি আবদুল মান্নান সরকার,উৎসবের যুগ্ম-আহবায়ক মো.মনির হোসেন ও সঙ্গীত পরিচালক পাপিয়া চৌধুরীর হাতে উৎসব স্মারক তুলে দেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares