Main Menu

নবীনগরে সংখ্যালঘুদের মন্দির পুরানোর ঘটনায় জেলানেতৃবৃন্দের ঘটনাস্থল পরিদর্শন সুষ্ঠ বিচারের দাবী

+100%-

নবীনগরে পৌর এলকায় একই রাতে চিঠি দিয়ে হুমকি দেওয়ার পনের দিনের মাথায় দুই সংখ্যালঘু বাড়িতে আগুন দিয়েছে দুবৃত্তরা। ঘটনাটি ঘটেছে গত মঙ্গলবার গভীর রাতে উপজেলা পরিষদ ওয়াল সংলগ্ন স্বদেশ রঞ্জন দেব ও পশ্চিম পাড়ার প্রদীপ সেনের বাড়িতে। এ নিয়ে সংখ্যলঘু পরিবার সহ জনমনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। গতকাল বুধবার সকালে সনেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, পৌর এলাকার স্বদেশ রঞ্জন দেবের বাড়িতে গত ১৫দিন আগে দুবৃত্তরা একটি চিরকুটের মাধ্যমে টাকা দাবী করে। দাবীকৃত টাকা না দিলে আগুন ধরিয়ে দিবে বলে হুমকি দেয়। এই ঘটনায় খবর পেয়ে জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি সুভাষ চন্দ্রপাল, জেলা হিন্দু, বৌদ্ধ, খিষ্ট্রান ঐক্য পরিষদের সাংগঠানি সম্পাদক প্রদুৎ নাগ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খোকন আচার্য্য, জেলা পূজা উদ্যাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সুভাষ দাস ও জাতীয় হিন্দু মহা জোট জেলা সদস্য সচিব প্রবীর চৌধুরী রিপন ঘনাস্থলে পৌছেন। পরে নবীনগর থানায় উপ পরিদর্শক (এস.আই) মেজবাহ, নবীনগর উপজেলা পুজা পরিষদের সভাপতি এডভোকেট সুনীল দেব জীবন, সাধারণ সম্পাদক সমর দাস, উপজেলা ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সিতা নাথ সূত্রদর, নবীনগর কেন্দ্রীয় কালীবাড়ির উপদেষ্টা বিশ্বনাথ গোষ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মানিক বিশ্বাস, রাধাশ্যাম বিশ্বাস, নন্দন বণিক ও বানু রঞ্জন দাসকে সঙ্গে নিয়ে সর জমিনে ঘঠনাস্থল পরিদর্শন করেন। এসময় তারা বলেন আমাদের মধ্যে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির মেলা বন্ধন রয়েছে। এই সম্প্রীতির মেলা বন্ধনকে ছিন্ন করার জন্য একটি কুচক্রি মহল নানা ভাবে পায়তারা করে আসছে। আমরা একে অপরের সাথে মিলেমিশে বসবাস করে আসছি। আমরা এই দেশে শান্তিতে থাকতে চায়। আমাদেরকে নানাভাবে হয়রানি করার জন্য অল্প কিছুদিন দরে মন্দিরপুড়ে সাম্প্রাদায়ক দাঙ্গার পায়তারা করছে। তাদেরকে ছিন্নিত করতে হবে। আমরা এ ঘটনার ত্রিব্রনিন্দা ও প্রতিবাদ করছি। পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে নবীনগর নির্বাহী অফিসার আবু শাহেদ চৌধুরীর সাথে সাাত করে ও এ ঘটনার সুষ্ঠ বিচারের দাবী জানান এবং দুশিব্যক্তিদের অভিলম্বে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার আহবান জানান।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares