Main Menu

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কৃতি সন্তান বিশিষ্ট কবি মাহফুজউল্লাহ ইন্তেকাল করেছেন

+100%-

স্টাফ রিপোটার:ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কৃতি সন্তান বিশিষ্ট কবি একুশে পুরস্কাপ্রাপ্ত গুণীজন মোহাম্মদ মাহফুজউল্লাহ (৮০) ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না লিল্লাহে রাজেউন)। তাঁর জন্ম ব্রাহ্মণবাড়িয়া আশুগঞ্জ উপজেলার তালশহর উপজেলার নাওঘাট গ্রামের ডেপুটি বাড়ীতে।

তিনি আজ রোববার মিরপুর ১০ নম্বরের আল হেলাল হাসপাতালে চিকিত্সাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেছেন।

তার মেয়ের ঘরের নাতনী ঐশী আমার দেশকে মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছেন। মোহাম্মদ মাহফুজউল্লাহ বিশিষ্ট সঙ্গীত পরিচালক মকসুদ জামিল মিন্টুর পিতা।

মোহাম্মদ মাহ্‌ফুজউল্লাহ্‌ কবি, প্রাবন্ধিক, সাহিত্য-সমালোচক ও নজরুল-গবেষক হিসেবে খ্যাতিমান। গত অর্ধশতাব্দীরও অধিককাল ধরে কবিতা রচনার পাশাপাশি তিনি বাংলাভাষা, সাহিত্য ও সমাজ-সংস্কৃতি এবং বিশেষভাবে আধুনিক বাংলা সাহিত্য ও সমাজ-সংস্কৃতি এবং বিশেষভাবে আধুনিক বাংলা সাহিত্য ও সমকালীন সাহিত্য সম্পর্কে আলোচনা-সমালোচনা ও প্রবন্ধ-নিবন্ধ এবং গ্রন্থাদি রচনা করে আসছেন। প্রাচীন ও আধুনিক বাংলা সাহিত্যে মুসলিম অবদান সম্পর্কে তিনি লিখেছেন গবেষণাধর্মী প্রবন্ধ-নিবন্ধ এবং একাধিক গ্রন্থ। কবি মোহাম্মদ মাহ্‌ফুজউল্লাহ্‌র রচনার একটা প্রধান অংশ অধিকার করে আছে বাংলা কবিতা এবং বিশেষত আধুনিক বাংলা কবিতা-সম্পর্কিত আলোচনা। মাইকেল, রবীন্দ্রনাথ, নজরুল-বাংলা সাহিত্যের এই তিন যুগ-স্রষ্টা কবির প্রতিভা ও অবদানের মূল্যায়নে তিনি শ্রম ও নিষ্ঠার পরিচয় দিয়েছেন। তিনি প্রবন্ধ-নিবন্ধ এবং গ্রন্থ রচনায় রেখেছেন গুরুত্বপূর্ণ অবদান। বাংলা সাহিত্যে বিদ্রোহী-চেতনা ও আধুনিকতার অসামান্য রূপকার, গীতিকার ও সুর-স্রষ্টা এবং সব্যসাচী লেখক জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জীবন, সাহিত্য-সংগীত ও সামগ্রিক অবদান সম্পর্কে আলোচনা এবং গবেষণা মোহাম্মদ মাহ্‌ফুজউল্লাহ্‌’র নজরুল-চর্চার শুরু। ১৯৬৩ সালে প্রকাশিত হয় তাঁর গুরুত্বপূর্ণ গ্রন্থ ‘নজরুল ইসলাম ও আধুনিক বাংলা কবিতা।’

কবি মোহাম্মদ মাহ্‌ফুজউল্লাহ্‌ সমগ্র বাংলা কাব্যের পটভূমিতে নজরুলের বিদ্রোহী চেতানার স্বরূপ ও স্বাতন্ত্র্য এবং আধুনিক বাংলা কাব্যে তাঁর ব্যাপক ও গভীর প্রভাবের পরিচয় উক্ত গ্রন্থে তুলে ধরেন। গ্রন্থটি সাহিত্য সমালোচকদের সপ্রশংস দৃষ্টি আকর্ষণ করে। ‘নজরুল-কাব্যের শিল্পরূপ’ শীর্ষক গ্রন্থে কবি মোহাম্মদ মাহ্‌ফুজউল্লাহ্‌ নজরুল-কাব্যে কল্পনা-প্রতিভা, উপমা-চিত্রকল্পের ব্যবহার, ভাষঅ ও ছন্দ, আঙ্গিক ও রূপরীতি ইত্যাদি সম্পর্কে মনোজ্ঞ আলোচনা করেছেন।

গত পঞ্চাশ বছরেরও অধিককালের সাহিত্য-জীবনে কবি মোহাম্মদ মাহ্‌ফুজউল্লাহ্‌ নজরুল-বিষয়ক গ্রন্থ ১. ‘নজরুল ইসলাম ও আধুনিক বাংলা কবিতা’, ২. ‘নজরুল-কাব্যের শিল্পরূপ’ ৩. ‘প্রাতিষ্ঠানিক নজরুল-চর্চার ইতিবৃত্ত’, ৪. ‘বিদ্রোহী ও জাতীয় কবি নজরুল’ ইত্যাদি গ্রন্থ প্রকাশ ছাড়াও বিভিন্ন পত্র-পত্রিকায় নজরুল-বিষয়ে বাংলা ও ইংরেজিতে অজস্র প্রবন্ধ-নিবন্ধ লিখেছেন। তাঁর রচিত নজরুলের জীবনভিত্তিক আলেখ্য ‘নীরব কেন কবি’র অডিও ক্যাসেট ১৯৮৭ সালে নজরুল ইন্সটিটিউট থেকে প্রকাশিত হয়। নজরুল বিষয়ক গ্রন্থ ছাড়াও মোহাম্মদ মাহ্‌ফুজউল্লাহ্‌’র বাইশটি প্রবন্ধ ও সমালোচনা গ্রন্থ, সাতটি কাব্যগ্রন্থ, দুইটি কাব্য সংগ্রহ প্রকাশিত হয়েছে। বাংলা কাব্য, প্রবন্ধ ও সমালোচনা সাহিত্যে বিশিষ্ট অবদানের জন্য মোহাম্মদ মাহ্‌ফুজউল্লাহ্‌ বাংলা একাডেমী সাহিত্য পুরস্কার, আবুল মনসুর আহমদ সাহিত্য পুরস্কার, নজরুল-স্মৃতি পুরস্কার (কলকাতার ‘হরফ’ প্রকাশনী প্রদত্ত), নজরুল ইন্সটিটিউট প্রদত্ত নজরুল পদক (২০০৪), ফররুখ স্মৃতি পুরস্কার, তমদ্দুন মজলিস প্রদত্ত ‘মাতৃভাষা পদক’, জাতীয় প্রেসক্লাব লেখক সম্মাননা, ফকির ফাউন্ডেশন সম্মাননা, আমুগঞ্জ বন্দর শতবার্ষিকী উদ্‌যাপন পরিষদ সম্মাননা ইত্যাদি লাভ করেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares