Main Menu

শিক্ষাকে প্রধান গুরুত্ব দিয়ে উন্নয়ন কর্মকান্ড এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছি..মোকতাদির চৌধুরী এমপি

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসকাবের আমন্ত্রণে প্রেসক্লাবে গিয়ে সাংবাদিকদের সাথে আড্ডা দিয়েছেন পানি সম্পদ মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের নির্বাহী সদস্য র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি। বৃহস্পতিবার সন্ধার পর তিনি প্রেসক্লাবে যান। প্রেসক্লাব সভাপতি সৈয়দ মিজানুর রেজার সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক রিয়াজ উদ্দিন জামির পরিচালনায় সাংবাদিকদের পক্ষে এসময় বক্তব্য রাখেন প্রবীণ সংবাদ ব্যক্তিত্ব মনজুরুল আলম, সহসভাপতি আল আমিন শাহীন,সাংবাদিক আবদুন নূর,বাহারুল ইসলাম মোল্লা। সংসদ সদস্য র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীকে প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে কোর্টপিন পরিয়ে দেয়া হয়। কোর্টপিন পরিয়ে দেয়া হয় পৌর মেয়র হেলাল উদ্দিনকেও। এসময় তিনি সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে বলেন,আমার পৌনে তিন বছর সময়ের মধ্যে শিক্ষাকে প্রধান গুরুত্ব দিয়ে উন্নয়ন কর্মকান্ড এগিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছি। এসময়ের মধ্যে আমার নির্বাচনী এলাকার ৮ টি স্কুলবিহীন গ্রামে নতুন স্কুল,বিভিন্ন স্কুল,কলেজে নতুন ভবন নির্মাণ,বিভিন্ন স্কুলে,কলেজে কম্পিউটার ল্যাব স্থাপন,কয়েকটি কলেজে অনার্স কোর্স চালু,বিভিন্ন কলেজে শিক্ষকদের বেতন নিয়মিতকরন করেছি। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার স্বাস্থ্যখাতের আমূল পরিবর্তনে ভূমিকা রাখার চেষ্টা করেছি।ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে কার্ডিয়াক ইউনিট চালু,নতুন এ্যাম্বুলেন্স সম্পৃক্তকরণ,বিজয়নগরে উপজেলা হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু,খিরাতলা গ্রামে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মাধ্যমে ইসলামিক মিশন হাসপাতাল স্থাপন করা হয়েছে। অতি অল্পদিনের মধ্যে বিজয়নগরে প্রাণী সম্পদ হাসপাতাল কাজ শুরু করবে।ইতিমধ্যেই বিজয়নগরবাসীর প্রাণের দাবী সিমনা-ব্রাহ্মণবাড়িয়া শেখ হাসিনা সড়কের কাজ শুরু করতে পেরেছি।এ সড়কে তিতাস নদীর উপর সেতু নির্মাণের প্রাথমিক কাজ সম্পন্ন হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যেই এর ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করা হবে।তিনি আরো বলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরবাসীর দূর্বিসহ যানজট নিরসণে বৃহস্পতিবার সকালে ৭৫ কোটি টাকা ব্যায়ে রেল ক্রসিংয়ের উপর নির্মিতব্য ওভারপাসের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেছি। এগিয়ে চলছে কাজিপাড়া-মৌলভী পাড়া শেখ শাহনেওয়াজ সেতুর কাজ।বিজয়নগরের চান্দুরা-আখাউড়া সড়কের ভয়াবহ খানাখন্দ দূর করে ঝকঝকে সড়ক উপহার দেয়া হয়েছে আমার সময়ে।আমার নির্বাচনী এলাকার প্রায় অর্ধশতাধিক  গ্রামে নতুন করে বিদ্যুত সংযোগ দেয়া হয়েছে। আমার নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি মতো ব্রাহ্মণবাড়িয়াকে সন্ত্রাস-টেন্ডারবাজ মুক্ত করতে পেরেছি। সময়ের সীমাবদ্ধতার কারণে আমি মেডিকেল কলেজটি বাস্তবায়ন করতে পারিনি বলে আমার খারাপ লাগে। আবারো যদি ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষের ভালোবাসায় নির্বাচিত হতে পারি তবে অবশ্যই অতি অল্প সময়ের মধ্যেই মেডিকেল কলেজ বাস্তবায়ন করতে পারবো। তখন সকলের সহযোগিতায় এমন কাজ করতে চেষ্টা করবো যাতে উন্নয়ন করার আর নতুন জায়গা বাকি না থাকে।তিনি আগামী নির্বাচন,রাজনৈতিক পথচলায় সাংবাদিকদের সর্বোত সহায়তা কামনা করেন। এসময় তার সাথে অন্যান্যের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহসভাপতি পৌর মেয়র হেলাল উদ্দিন,১৪ দলের সমন্বয়ক আমানুল হক সেন্টু,জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান আল মামুন সরকার,সাংগঠনিক সম্পাদক হেলাল উদ্দিন,মাহবুবুল বারী চৌধুরী মন্টু,মুজিবুর রহমান বাবুল,তথ্য গবেষনা সম্পাদক সৈয়দ নজরুল ইসলাম,বিজয়নগর উপজেলা সভাপতি জহিরুল ইসলাম ভূঞা,সদর উপজেলা সভাপতি হাবিবুল্লাহ বাহার প্রমূখ।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares