Main Menu

কিশোরীর ইজ্জতের মূল্য ৩ লাখ টাকা পরিশোধ না করায় থানা হাজতে

+100%-

প্রতিনিধিঃ গ্রাম্য সালীশে কিশোরীর ইজ্জতের মূল্য তিন লাখ টাকা ধার্য্য করে । ধার্য্যকৃত টাকা পরিশোধে ব্যর্থ হওয়া পুলিশ নিয়ে আসে থানা হাজতে। ঘটনাটি ঘটেছে সোমবার ব্রাহ্মনবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার চাপরতলা ইউনিয়নের চাপরতলা  গ্রামে । ঘটনার বিবরনে জানা গেছে ,গুনিয়াউক ইউনিয়নের চিতনা গ্রামের তিন সন্তানের জনক মৃত সফর উদ্দিনের ছেলে মোঃ রতন মিয়া (৩৫) চাপরতলা গ্রামের আহাম্মদ আলীর কিশোরী কন্যা ১৮ কে কাতার নিবে বলে ৬০ হাজার টাকা মৌখিক চুক্তি করে এবং নগদে ২০ হাজার টাকা নেয় । পরে কিশোরীকে পাসপোর্ট করার কথা বলে ব্রাহ্মনবাড়িয়া নিয়ে গিয়ে ওই কিশোরীর কাছ থেকে একটি সাদা কাগজে স্বাহ্মর নেয় এবং দুটি ছবি উঠিয়ে নেয় বলে কিশোরী জানান ।তিনদিন কিশোরীকে বিভিন্ন জায়গা রেখে তাকে বিয়ে করেছে বলে প্রতারক চারদিনের মাথায় বাড়ি নিয়ে আসে । পরে কিশোরী বিষয়টি তার অভিভাবকদের জানালে ,তারা গ্রাম্য সর্দার মাতাব্বরদের নিয়ে শালিসে বসে ।শালীসে সর্দাররা ওই কিশোরির ইজ্জতের মূল্য ৩ লহ্ম টাকা ধার্য্য  করে । পরদিন সর্দারদের ধার্য্যকৃত টাকা পরিশোধ না করায় ,কিশোরী বাদি হয়ে  থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ রতন কে গ্রেফতার  করে থানায় নিয়ে আসে ।এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত রতন থানা হাজতে ছিল ।
এ বিষয়ে পুলিশের উপপরিদর্শক মোঃ ফজলুল হকের সাথে যোগাযোগ করে জানতে চাইলে তিনি জানান
ওসি সাহেব বাহিরে আছেন তিনি আসলে যে কোন সিদ্ধান্তে পৌছবে । তিনি বলেন আমরা চাচ্ছি যেন
মেয়েটা সমস্ত টাকাগুলো পেয়ে যায় এবং টাউটভাটপাররাা ভাগবাটোয়ারা করে না খেতে পারে ।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares