Main Menu

চিকিৎসকের ভুলে প্রসূতির মৃত্যু, হাসপাতাল ভাঙচুর

+100%-

প্রতিবেদক : ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় একটি প্রাইভেট হাসপাতালে চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় শারমিন আক্তার (১৯) নামক এক প্রসুতির মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। তবে নবজাতক মেয়ে শিশুটি বেঁচে থাকলে তার অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে স্বজনরা জানায়। মঙ্গলবার শহরের কুমারশীলমোড়স্থ আমীন কমপ্লেক্সের দি ল্যাব এইড শিশু ও জেনারেল হাসপাতালে এই ঘটনা ঘটে। এই ঘটনার পর নিহতের আত্মীয়-স্বজন ও বিুব্ধ লোকজন ওই হাসপাতালে ব্যাপক ভাঙচুর চালায়।
জানা যায়, গত সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার নাটাই উত্তর ইউনিয়নের বেহাইর গ্রামের রুহুল আমীনের স্ত্রী শারমিন আক্তার প্রসবজনিত কারণে ওই হাসপাতালে ভর্তি হন। রাতেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সদর হাসপাতালে গাইনী, প্রসুতি ও স্ত্রীরোড বিশেষজ্ঞ সার্জন ডা. শরীফ মাসুমা ইসমত অস্ত্রোপচারের পরামর্শ দেন এবং রাতেই অস্ত্রোপচারের পর শারমিন আক্তার কন্যাশিশু জন্ম দেন। মঙ্গলবার সকালে ওষুধ ও ইনজেকশন দেয়ার পর তার অবস্থার দ্রুত অবনতি ঘটতে থাকে। সকাল প্রায় ৯টায় তার মৃত্যু হয়। তার মৃত্যুর পর ওই হাসাপাতালের ডিউটি ডাক্তার, সেবিকা ও কর্মচারী এবং মালিকপক্ষ হাসপাতাল ছেড়ে পালিয়ে যায়। পরে নিহতের আত্মীয়-স্বজন ও বিুব্ধ লোকজন হাসপাতালের নিচতলার অভ্যর্থনা কক্ষ, তিন হলার ওয়ার্ড মাস্টার, সেবিকা, অস্ত্রোপাচার ও অফিস করে জানাল ও আসবাবপত্র ব্যাপক ভাঙচুর চালায়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। নিহতের ভাসুর শাহানুর জানান, ‘ইনজেকশন পুশ করার পর আমার ভাইয়ের স্ত্রী মারা গেছে। ডাক্তারের ভূলের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে।’ অভিযুক্ত চিকিৎসক শরীফ মাসুমা ইসমতের মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগ করেও তাকে পাওয়া যায়নি। ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিভিল সার্জনের দায়িত্বে থাকা ডা. আবু সাঈদ জানান, ‘কেউ অভিযোগ দেয়নি। তবে চিকিৎসক দোষী হলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।’






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares