Main Menu

নারায়ণগঞ্জের কনটেইনার টার্মিনাল নির্মাণ: খালেদাকে জবাব দিয়েছে ভারত

+100%-

ঢাকা : জাতীয় সংসদে বিএনপি চেয়ারপারসন ও বিরোধীদলীয় নেতা খালেদা জিয়ার দেওয়া ভাষণে ভারত সম্পর্কে আনা নানা অভিযোগের জবাব দিয়েছে দেশটি। ভারতের পক্ষ থেকে এ সংক্রান্ত একটি লিখিত জবাব খালেদা জিয়াকে দেওয়া হয়েছে।
বৃহস্পতিবার রাতে বিএনপির গুলশান কার্যালয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার পঙ্কজ সরণ সৌজন্য সাক্ষাত্ করেন। সেখানে তিনি খালেদা জিয়ার কাছে ভারতের জবাব সম্বলিত একটি চিঠি দেন। এ সময় বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা রিয়াজ রহমান উপস্থিত ছিলেন।
সৌজন্য সাক্ষাত্ শেষে রিয়াজ রহমান গুলশান কার্যালয় থেকে বেরিয়ে যাওয়ার সময় একথা বলেন। তিনি জানান, এ ধরনের একটি চিঠি ভারতের পক্ষ থেকে সরকারকেও দেওয়া হয়েছে। বিএনপি চেয়ারপারসন ভারতের হাইকমিশনারকে বলেন, ‘আমরা এই বিষয়গুলো সম্পর্কে কিছুই জানতে পারছি না। ভারত ও বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকেও কোনো কিছু জানানো হচ্ছিল না।’
গত ২৯ জুন সংসদে দেওয়া ভাষণে খালেদা জিয়া নারায়ণগঞ্জের কনটেইনার টার্মিনাল নির্মাণের জন্য বাংলাদেশকে না জানিয়ে ভারতের দরপত্র আহ্বান, তিস্তা চুক্তি না হওয়া, টিপাইমুখ বাঁধ নির্মাণ ও সীমান্তে অব্যাহত বাংলাদেশি নাগরিকদের হত্যার অভিযোগ তুলে ধরেন। আজ খালেদাকে দেওয়া চিঠিতে এ সংক্রান্ত বিষয়ে ভারতের অবস্থান তুলে ধরা হয়। এই বিষয়গুলো নিয়ে ভুল বোঝাবুঝির অবসানের জন্য ভারতের পক্ষ থেকে এ চিঠি দেওয়া হয়েছে বলে পঙ্কজ সরণ খালেদা জিয়াকে জানান।
রিয়াজ রহমান আরও বলেন, ‘বৈঠকে দেশের সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি নিয়েও কথা হয়েছে।’ তিনি বলেন, চার সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়েও কথা হয়েছে। নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবি জানিয়ে খালেদা জিয়া বলেন, এর মাধ্যমে সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন হয় এবং এটাই তারা চায়। এ সময় পঙ্কজ সরণ খালেদা জিয়াকে বলেন, ‘আপনারা তো সিটি করপোরেশন নির্বাচনে জিতেছেন।’ এর জবাবে খালেদা জিয়া বলেন, ‘চার সিটিতে সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আমাদের প্রার্থীরা আরও বেশি ভোটের ব্যবধানে জয়ী হতো।’
দুটি দেশের পারষ্পারিক সম্পর্ক নিয়ে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে। খালেদা জিয়াকে ভারতের হাইকমিশনার বলেছেন, বিএনপি ভারতের সঙ্গে সুসম্পর্ক চায়। এ প্রসঙ্গে হাইকমিশনার বলেন, ভারতও তাই চায়। তারা বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ কোনো বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে চায় না। ভারত চায় দুটি দেশের জনগনের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে উঠুক।
বৈঠকে ভারতের হাইকমিশনার তাঁর দেশের প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের একটি অভিনন্দনপত্র বিএনপি চেয়ারপারসনকে দেন। সম্প্রতি ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে ভয়াবহ বন্যায় ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানির ঘটনায় দু:খপ্রকাশ করে খালেদা জিয়া চিঠি দেওয়ার মনমোহন এই পত্র দেন।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares