Main Menu

সার্টিফিকেট বা বৈধ কোন অনুমোদন ছাড়াই ডায়াগনস্টিক সেন্টার চালান সর্ব রোগের ডাক্তার বিল্লাল!

+100%-

আরাফাত আহমেদঃ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৈয়াগ নরসিংসার বোর্ড বাজারে বিল্লাল নামক একজন ব্যাক্তি নিজেকে ডাক্তার পরিচয় দিয়ে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসার নামে অপচিকিৎসা করছেন বলে এলাকাবাসির অভিযোগ রয়েছে। সরেজমিন প্রতিবেদনে নরসিংসার বোর্ড বাজারে গিয়ে দেখা যায় সাইনবোর্ড বা নামঠিকানা বিহীন একটি বড় কক্ষের এক পার্শে বিল্লালের ফার্মেসী আর অন্য পার্শে তার রোগনির্ণয় পরীক্ষাগার। রোগী দেখার পর তিনি রোগীদের বিভিন্ন টেস্ট(রোগনির্ণয় পরিক্ষা)দেন। টেস্ট (রোগনির্ণয় পরিক্ষা)বিল্লাল নিজেই করেন। টেস্ট এর জন্য রোগীদের আলাদা ফি দিতে হয়। টেস্ট এর কোন লিখিত রিপোর্ট না দিয়ে রোগীকে ঔষধ দেন তিনি।পল্লী চিকিৎসক হবার জন্য প্রয়োজনীয় ন্যূনতম এল এম এফ ডিগ্রি না থাকায় কিভাবে চিকিৎসা করছেন জানতে চাইলে বিল্লাল বলেন,ডিগ্রির কোন প্রয়োজন নাই।কোন বৈধ অনুমোদন এবং ল্যাব ট্যাকনেসিয়ান ডিপ্লোমা আপনার নেই, অথচ রক্তের গ্রুপ নির্ণয়, ডায়াবেটিক, জন্ডিস সহ বিবিধ জটিল রোগের টেস্ট করছেন কিভাবে জানতে চাইলে বিল্লাল আমাদের কোন প্রশ্নের উত্তর দিবেন না বলে জানিয়ে দেন।চেম্বার এর সামনের পুকুরের অপরিচ্ছন্ন এবং নোংরা পানি দিয়ে চিকিৎসার সরঞ্জাম পরিস্কার করেন বিল্লাল যা দেখে আমরা রিতিমত বিস্মিত হই।নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় একজন শিক্ষক জানান একাধিকবার বিল্লালের চিকিৎসায় মরনাপন্ন হয়ে তার বিরুদ্ধে জেলা সিভিল সার্জন অফিসকে অবগত করা হয়েছে। চিকিৎসার নামে গ্রামের সহজ সরল জনগনের সাথে প্রতারনা করছে বলে জানান তিনি।ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সিভিল সার্জনের প্রধান অফিস সহকারি জাহিদুল হক ব্রাহ্মণবাড়িয়া টুয়েন্টি ফোর নিউজকে জানান, এলাকার জনগনের অভিযোগের ভিত্তিতে বিল্লালকে তিনবার নোটিশ পাঠিয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ সিভিল সার্জনের কার্যালয়ে তলব করা হলেও তিনি হাজির হন নাই। তাই তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য মাননীয় জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তাকে অনুরোধ জানানো হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares