Main Menu

জাতীয় পাঠ্যপুস্তক দিবস উদযাপন-২০১৭

শিক্ষায় উৎসাহী করতে পৃথিবীর মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশই বিনামূল্যে নতুন বই তুলে দিচ্ছে শিক্ষার্থীদের হাতে — মোকতাদির চৌধুরী এমপি

+100%-

mp_bookডেস্ক ২৪:: ১লা জানুয়ারী রোববার সকালে অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রশাসন, জেলা শিক্ষা অফিস ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের যৌথ আয়োজনে জাতীয় পাঠ্যপুস্তক দিবস উদযাপন-২০১৭ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যতম সদস্য, বিশিষ্ট লেখক, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি। ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম, পৌরসভার মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নায়ার কবীর, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক পৌর চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আল মামুন সরকার প্রমুখ। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ আনোয়ার হোসেন, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সুব্রত কুমার বণিক, অন্নদা সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরিদা নাজমীন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন অন্নদা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক উত্তম কুমার চক্রবর্তী।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোকতাদির চৌধুরী এমপি বলেন, বাংলাদেশের সাধারণ ও সর্বশ্রেণির পরিবারের শিশুদের সুশিক্ষার সুযোগদানে বর্তমান সরকার সফলভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তাই শিক্ষায় উৎসাহী করতে পৃথিবীর মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশ সরকারই বিনামূল্যে বছরের শুরুতেই বই তুলে দিচ্ছে শিক্ষার্থীদের হাতে। তাই দেশজুড়ে চলছে বই উৎসব। তিনি আরো বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান দেশ স্বাধীন করেছেন বলেই এবং তার সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন বলেই আমাদের সন্তানদের শিক্ষিত করার জন্য এমন সুযোগ এসেছে। জাতিকে শিক্ষিত করার জন্য পৃথিবীর কোথাও বিনামূল্যে বই বিতরণ করা হয় না। যা প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা শুরু করেছেন। তার সরকার আমলে স্বাধীন দেশে আমরা ভালো আছি। তিনি বলেন, নতুন বছরের শুরুতেই সকল ছাত্রছাত্রীর হাতে নতুন বই বিতরণ অনেক বড় একটি সাফল্য। সকল শিক্ষার্থী নতুন বই হাতে পেয়ে অনেক খুশি হয়েছে। শিক্ষার মান উন্নয়নে এটি একটি যুগান্তকারী পদক্ষেপ।

উল্লেখ্য, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় প্রাথমিক স্তরে ২৬ লাখ ৪৯ হাজার ৪ শত ১৯ এবং মাধ্যমিক, দাখিল, ইবতেদায়ী, এসএসসি ভোকেশনাল, দাখিল ভোকেশনাল, মাধ্যমিক ইংরেজি ভাসর্নে ৪১ লাখ ৫৮ হাজার ৫ শত ২৫ টি বই বিতরণ করা হয়েছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares