Main Menu

লিটারে দেড়শ মিলি তেল কম, ভাদুঘর, ঘাটুরা, রামরাইলে পেট্রোল পাম্পকে জরিমানা ও তেল বিক্রয়ে নিষেধাজ্ঞা

+100%-

মেসার্স এস রহমান ফিলিং স্টেশন তেল বিক্রিতে পরিমাণে কম দিচ্ছিল। এনিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমেও লেখালেখি হচ্ছিল।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পরিমাপে কম দেয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় ব্রাহ্মনবাড়িয়ায় তিনটি পেট্রোল পাম্পকে অর্থদণ্ড করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। পাশাপাশি বিএসটিআই ও পাম্প মেশিন সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে পূর্ণ মাপের তেল সরবারাহ নিশ্চিত না করা পর্যন্ত তেল বিক্রয় বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। সোমবার দুপুরে জেলা শহরের ভাদুঘরে এই অভিযান পরিচালনা করা হয়।

রামরাইলের আয়েশা ফিলিং স্টেশনকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫ দিনে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

এর মধ্যে শহরের ভাদুঘরে বাস টার্মিনাল সংলগ্ন মেসার্স এস রহমান ফিলিং স্টেশনকে ২০ হাজার, ঘাটুরার তিতাস রিফুয়েলিং এন্ড সিএনজি স্টেশন ৩০ হাজার ও রামরাইলের আয়েশা ফিলিং স্টেশনকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫ দিনে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

অভিযানের নেতৃত্ব দেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কিশোর কুমার দাস।

তিনি জানান, ফিলিং স্টেশনগুলো তেল বিক্রিতে পরিমাণে কম দিচ্ছিল। এনিয়ে অভিযোগের ফিলিং স্টেশনগুলোতে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় যাচাই করে অভিযোগের সত্যতা পাওয়া। তারা প্রতি লিটারে গ্রাহকদের এক থেকে দেড়শত মিলিলিটার তেল কম দিচ্ছিল।

ঘাটুরার তিতাস রিফুয়েলিং এন্ড সিএনজি স্টেশন ৩০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ১৫ দিনে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

তিনি আরো বলেন, গ্রাহকদের তাদের প্রাপ্য থেকে কম তেল সরবরাহ করায় ২০১৮এর ৪৬ ধারা ভঙ্গের দায়ে আর্থিক জরিমানা অনাদায়ে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়। একই সাথে তেলের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হয়েছে এবং পূর্ণ মাপের তেল সরবারাহ নিশ্চিত না করা পর্যন্ত তেল বিক্রয় বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে।