Main Menu

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জেন্ডার, দুর্নীতি ও সুশাসন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত

+100%-

“দুর্নীতিবিরোধী আন্দোলন ও নারী অধিকার আন্দোলন একই সূত্রে গাঁথা” শ্লোগানকে সামনে রেখে ইয়ুথ এনগেজমেন্ট এন্ড সাপোর্ট (ইয়েস), সনাক, ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং ট্রান্সপারেন্সি ইন্টান্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) এর উদ্যোগে ২১ মার্চ ২০১৯ তারিখ বৃহস্পতিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি কলেজ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সরকারি মহিলা কলেজে, সিটি কলেজ এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর ডিগ্রি কলেজে অধ্যয়নরত ৪২ জন ছাত্র ছাত্রীর অংশগ্রহণে ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব মিলনায়তনে জেন্ডার, দুর্নীতি ও সুশাসন বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মশালা উদ্বোধন করেন ইয়ুথ এনগেজমেন্ট এন্ড সাপোর্ট (ইয়েস) ও ইয়েস ফ্রেন্ডস উপকমিটির আহ্বায়ক নন্দিতা গুহ এবং স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন ইয়েস দলনেতা রিয়াজ আহমেদ চৌধুরী। কর্মশালায় টিআইবি’র প্রোগ্রাম ম্যানেজার নাজমা খানম নাজুর উপস্থাপনায় জেন্ডার, দুর্নীতি ও সুশাসনের সাথে পারস্পরিক সম্পর্ক, নারী পুরুষের অবস্থান প্রেক্ষিত: বাংলাদেশ, জেন্ডার সমতা ও সাম্য এবং জেন্ডার – ক্ষমতা কাঠামো ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা ও পর্যালোচনা হয়। কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীবৃন্দ দলীয় কাজের মাধ্যমে সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানে জেন্ডার বৈষম্য, দুর্নীতি ও সুশাসনের ঘাটতি এবং উত্তরণের করণীয় চিহ্নিত করে কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্যে সনাক সভাপতি প্রকৌশলী মোঃ রফিকুল ইসলাম বলেন, কর্মশালার মাধ্যমে অংশগ্রহণকারী তরুণ ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে দুর্নীতিবিরোধী বীজ রোপিত হয়েছে। তিনি বর্তমানে তরুণদের মধ্যে মূল্যবোধের অবক্ষয়, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার অভাব, সামাজিক ও ধর্মীয় মূল্যবোধের অভাব রয়েছে। তিনি কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী তরুণদের সামাজিক মূল্যবোধে উদ্বুদ্ধ হয়ে সকল ধরনের দুর্নীতির বিরুদ্ধে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।
সনাক সহ সভাপতি ও জেন্ডার বিষয়ক উপ কমিটির আহ্বায়ক শামীমা সিকদার দীনা বলেন বর্তমান মুসলিম উত্তরাধিকার আইন নারীদের সম অধিকার নিশ্চিত করেনা এবং হিন্দু ধর্মে সম্পত্তিতে নারীদের অধিকার না থাকায় জেন্ডার সংবেদনশীল সমাজ গড়ে উঠেনি। তাছাড়া জন্ম নিবন্ধনের জন্য বাধ্যতামূলক আইন না থাকায় দুর্নীতির মাধ্যমে মেয়েদের বয়স বাড়িয়ে বাল্য বিবাহ দেয়া হচ্ছে। তিনি অংশগ্রহণকারী তরুণ তরুণীদের অধিকার আদায়ে সোচ্ছার হওয়ার আহ্বান জানান।
অংশগ্রহণকারী ছাত্র ছাত্রীদের মধ্যে কর্মশালা বিষয়ে আরমিন বিনতে রহমান ও সজিব মিয়া অভিমত ব্যক্ত করে বলেন কর্মশালায় অর্জিত জ্ঞান নিজেদের জেন্ডার সংবেদনশীল হতে সহায়ক হবে এবং উক্ত বিষয়ে তাঁরা পরিবার ও বন্ধুদের সচেতন করবেন।
কর্মশালায় আরও বক্তব্য প্রদান করেন সনাক সহ সভাপতি আবদুন নূর, সনাক সদস্য মোহাম্মদ আরজু এবং ইয়েস সদস্য জেসমিন আক্তার। কর্মশালা পরিচালনা করেন ইয়েস সদস্য মোঃ আল আমিন।প্রেস বিজ্ঞপ্তি






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares