Main Menu

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ৬ ইউনিয়নে ভোট

+100%-

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ছয়টি ইউনিয়নে ভোট হচ্ছে আজ বৃহস্পতিবার। এরমধ্যে নাসিরনগরের ভলাকুট, বিজয়নগর উপজেলার পাহাড়পুরে চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচন এবং নবীনগরের কাইতলা ইউনিয়নে সাধারণ নির্বাচন হচ্ছে। এছাড়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের একটি ওয়ার্ডে চেয়ারম্যান ও সাধারণ সদস্য প্রার্থীর পুনঃভোট গ্রহণ করা হবে ওইদিন।

 একইদিনে নাসিরনগরের গুনিয়াউক, ধরমণ্ডল ও কুণ্ডা ইউনিয়নে সাধারণ সদস্য পদে উপ-নির্বাচন হবে। এসব ইউনিয়নে প্রতিদ্বন্দ্বী চেয়ারম্যান ও সদস্য প্রার্থীরা ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছেন। ওদিকে নির্বাচন সুষ্ঠু করতে প্রস্তুতি নিয়েছেন নির্বাচন কর্মকর্তারা।

নবীনগরের কাইতলা ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের এম আসলাম মৃধা ও বিএনপির মো. দেলোয়ার হোসেন দুলাল প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সংরক্ষিত নারী সদস্যের তিনটি ওয়ার্ডের মধ্যে ২ নম্বর ওয়ার্ডে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় প্রার্থী নির্বাচন হয়েছে। বাকি ১ নম্বর ওয়ার্ডে ৩ জন ও ৩ নম্বর ওয়ার্ডে ২ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। সাধারণ সদস্য পদে ৯টি ওয়ার্ডে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২৬ জন।

এর মধ্যে ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ৫ জন,৮ নম্বর ওয়ার্ডে ৪ জন, ৩, ৬ ও ৭ নম্বর ওয়ার্ডে ৩ জন করে এবং ১, ২, ৫ ও ৯ নম্বর ওয়ার্ডে ২ জন করে প্রার্থী রয়েছেন।

বিজয়নগর উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান পদে উপ-নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫ জন। তারা হচ্ছেন- আওয়ামী লীগের মোহাম্মদ আবুল কালাম, বিএনপির শাহাব উদ্দিন, স্বতন্ত্র আবুল বাহার ভূইয়া, কাজী মাইন উদ্দিন ও মো. মাইন উদ্দিন।

নাসিরনগর উপজেলার ভলাকুট ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদের প্রতিদ্বন্দ্বীরা হচ্ছেন- আওয়ামী লীগের রুবেল মিয়া, বিএনপির ছোয়াব খান ও স্বতন্ত্র আরাফাত আলী। এছাড়া এই উপজেলার গুনিয়াউক ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে নির্বাচন হচ্ছে। এই ওয়ার্ডের প্রতিদ্বন্দ্বীরা হচ্ছেন- মো. আবুল কাশেম, মো. শরিফ উদ্দিন ও রহমত আলী।

ধরমণ্ডল ইউনিয়নের ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ৫ জন। তারা হচ্ছেন- আবদুর রশিদ মিয়া, আশরাফ উদ্দিন, ফরিদ মিয়া, মো. তাউস মিয়া ও মো. সানু মিয়া।

কুন্ডা ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২ জন। তারা হচ্ছেন মো. নূর হোসেন ভূইয়া ও হুসনা বেগম।

সদর উপজেলার নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডে চেয়ারম্যান ও সাধারণ সদস্য পদে পুনঃভোট গ্রহণ করা হবে। চেয়ারম্যান পদের প্রতিদ্বন্দ্বীরা হচ্ছেন- আওয়ামী লীগের নূরুল আমিন, বিএনপির মো. নাজিম উদ্দিন, স্বতন্ত্র মো. শাহআলম ও মো. নাজমুল হক। সাধারণ সদস্য পদে গাজী কামাল ও মোজাম্মেল হক প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এদিকে নির্বাচনী এলাকার আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় নিয়োজিত বাহিনীকে প্রয়োজনীয় আইনগত সহায়তা ও দিকনির্দেশনা প্রদান এবং নির্বাচনী আচরণবিধি প্রতিপালন নিশ্চিতকল্পে এসব ইউনিয়নে আগামী  ১৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট দায়িত্ব পালন করবেন। এর মধ্যে নাসিরনগর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ৬ জন, সদরে ১ জন, নবীনগরে ৩ জন এবং বিজয়নগরে ৩ জন দায়িত্ব পালন করবেন।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আলাউদ্দিন আল মামুন জানান, এসব ইউনিয়নের ভোটগ্রহণ সুষ্ঠু করতে পুলিশের পাশপাশি ৭ ব্যাটালিয়ন আনসার, ৪ ব্যাটালিয়ন বিজিবি এবং ৪ ব্যাটালিয়ন র‌্যাব দায়িত্ব পালন করবে। এর মধ্যে নবীনগরের কাইতলায় ১ ব্যাটালিয়ন করে বিজিবি ও র‌্যাব এবং ২ ব্যাটালিয়ন আনসার, নাসিরনগরের ভলাকুটে ২ ব্যাটালিয়ন আনসার এবং ১ ব্যাটালিয়ন করে বিজিবি ও র‌্যাব, বিজয়নগরে ১ ব্যাটালিয়ন করে বিজিবি ও র‌্যাব ও ২ ব্যাটালিয়ন আনসার এবং সদরের ১ ব্যাটালিয়ন করে বিজিবি, র‌্যাব ও আনসার দায়িত্ব পালন করবে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares