Main Menu

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালী ও আলোচনা সভায়-জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা খান

পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার মাধ্যমে প্রত্যেকের দেহ পুষ্টির অভাব মুক্ত রাখতে হবে পুষ্টিকর খাবার সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে হবে

+100%-

“খাদ্যের কথা ভাবলে, পুষ্টির কথাও ভাবুন” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ২৩-২৯ এপ্রিল পুষ্টি সপ্তাহের উদ্বোধন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল ২৩ এপ্রিল মঙ্গলবার সকালে জেলা প্রশাসন ও সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সমন্বিত জেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির আয়োজনে জেলা সদরের শহরের অন্নদা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে পুষ্টিকর খাদ্য খাওয়া নিশ্চিত করণের বিভিন্ন বাক্যের শ্লোগান সম্বলিত ফেস্টুন এবং ব্যানার সহযোগে জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা খানের নেতৃত্বে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এতে সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন।

র‌্যালী শেষে বিদ্যালয় মিলনায়তনে প্রথমোক্ত শ্লোগান ভিত্তিক প্রতিপাদ্য বিষয়ে গুরুত্ববহ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সিভিল সার্জন ডাক্তার মোঃ শাহ আলম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা শিক্ষা কর্মকর্তা (মাধ্যমিক) গৌতম চন্দ্র মিত্র, স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মো: আবুল কালাম, অন্নদা সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফরিদা নাজমীন। ডাক্তার এষণা পাল এর উপস্থাপনায় স্বাগত বক্তব্য উপস্থাপন করেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা নাজবাহুল ইসলাম।

সভায় বক্তারা দেহের পুষ্টি চাহিদা মিটাতে প্রতিদিনের খাদ্যাভ্যাসে দোকানের ফুচকা ঝালমুড়িসহ অস্বাস্থ্যকর ও পঁচনশীল ফাস্টফুড খাওয়া বাদ দিয়ে বাড়ি ঘরে তৈরী পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার, বেশী হারে শাক সব্জী এবং মৌসুমী ফল খাওয়া নিশ্চিত করতে ছাত্রছাত্রীসহ সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা খান ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ভবিষ্যতে বাংলাদেশে নেতৃত্ব দেবে তোমরাই। পরীক্ষায় শুধু ভাল ফলাফল এবং জিপিএ-৫ পেয়ে পাস করলেই হবে না, ভাল ফলাফলের জন্য প্রত্যেককে সুস্থ থাকতে হবে। এজন্য তোমাদের সহ সকলকেই পুষ্টিসমুদ্ধ খাবার খেতে হবে। পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার খাওয়ার মাধ্যমে প্রত্যেকের দেহ পুষ্টির অভাব মুক্ত রাখতে হবে। জেলা প্রশাসক আরও বলেন, সুস্বাস্থ্য রাখতে হলে পুষ্টিকর খাবার সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করতে হবে। খাদ্যের কথা ভাবলে খাদ্যে পুষ্টির কথাও ভাবতে হবে। আলোচনা সভা শেষে পিকআপ গাড়ী যোগে সারাদিন শহরে জনসচেতনতায় খাদ্যে পুষ্টি যোগ করতে বাউল গান পরিবেশন করা হয় ।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares