Main Menu

জেলা পর্যায়ের শুদ্ধভাবে জাতীয় সংগীত চূড়ান্ত প্রতিযোগীতা প্রতিযোগীতা জাতীয় সংগীত প্রতিটি স্কুলে শুদ্ধভাবে পরিবেশন করা জরুরী-অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) তাজিনা সারোয়ার

+100%-

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) তাজিনা সারোয়ার বলেছেন, শুদ্ধভাবে জাতীয় সংগীত পরিবেশনের জন্যে সরকার সারাদেশের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে উদ্যোগ নিয়েছে। তাই জাতীয় সংগীত প্রতিটি স্কুলে শুদ্ধভাবে পরিবেশন করা জরুরী।

মঙ্গলবার দুপুরে শুদ্ধভাবে জাতীয় সংগীত প্রতিযোগীতা জেলা পর্যায়ের প্রতিযোগীতা শেষে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) সদর সোহেল রানা, নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাসুদুর রহমান, জেলা শিল্পকলা একাডেমীর যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন সোলেন।
প্রতিযোগিতায় বিচারকের দায়িত্ব পালন করেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির কো-অর্ডিনেটর, সংগীত প্রশিক্ষক সাংবাদিক পীযূষ কান্তি আচার্য, সংগীত প্রশিক্ষক সন্ধ্যা রায়, সংগীত প্রশিক্ষক মনিকা আচার্য।
প্রতিযোগিতায় ‘ক’ বিভাগে (প্রাথমিক স্তর) ১ম স্থান অধিকার করেছে নাসিরনগর উপজেলা, ‘খ’ বিভাগে (মাধ্যমিক স্তর) ১ম স্থান অধিকার করেছে সদর উপজেলা এবং ‘গ’ বিভাগের কলেজ পর্যায়ে ১ম হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা। আগামী ৫ মার্চ বিজয়ীরা চট্টগ্রামে অনুষ্ঠিতব্য বিভাগীয় পর্যায়ে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করবে।
উল্লেখ্য, মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী শুদ্ধভাবে জাতীয় সংগীত এবং দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে জাতীয় সংগীত চর্চাকে অনুপ্রাণিত করার লক্ষ্যে আজ চূড়ান্ত প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares