Main Menu

ভারতে তালাক বিল নারী-বিরোধী, বহু পরিবার ধ্বংস হবে, বলছে মুসলিম ল বোর্ড

+100%-

তিন তালাক বিতর্কে ফের আসরে নামল অল ইন্ডিয়া মুসলিম পার্সোনাল ল বোর্ড (এআইএমপিএলবি)। তাৎক্ষণিক তালাক রুখতে কেন্দ্রীয় সরকার যে বিল আনছে, সে বিল নারী-বিরোধী এবং এই বিল আইনে রূপান্তরিত হলে বহু পরিবার ধ্বংস হয়ে যাবে— রবিবার এমনই মন্তব্য করা হয়েছে এআইএমপিএলবি-র তরফে।

‘‘বিলের খসড়া তৈরির সময় যে পদ্ধতি অনুসরণ করা উচিত ছিল, তা করা হয়নি। এই বিলের সঙ্গে যাঁরা সংশ্লিষ্ট, সেই সব পক্ষের সঙ্গে আলোচনা করা হয়নি। এআইএমপিএলবি-র সভাপতি বিষয়টি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলবেন এবং বিলটি প্রত্যাহার করার জন্য তাঁকে অনুরোধ জানাবেন।’’ বোর্ডের তরফে সাজ্জাদ নোমানি এ দিন এ কথা বলেছেন।

বোর্ডের সম্পাদক মৌলানা খালিদ সাইফুল্লা রহমানি একটি ইংরেজি সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এআইএমপিএলবি-ও তাৎক্ষণিক তালাকের বিরুদ্ধে। কিন্তু তাৎক্ষণিক তালাক রুখতে যে বিল কেন্দ্র আনছে, সেই বিলের কাঠামো সন্তোষজনক নয় এবং অপরাধীকে তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়ার যে সংস্থান বিলে রাখা হচ্ছে, তাতে বোর্ডের আপত্তি রয়েছে বলে রহমানি জানিয়েছেন।

সুপ্রিম কোর্টের রায়ে তাৎক্ষণিক তিন তালাক আগেই অবৈধ ঘোষিত হয়েছে। এই অবৈধ প্রথা রুখতে আইন প্রণয়ন করুক ভারত সরকার, নির্দেশ দিয়েছিল আদালতই। সেই নির্দেশের রূপায়ণের লক্ষ্যেই এ বার তিন তালাক বিরোধী আইন আনছে কেন্দ্র। কিন্তু এআইএমপিএলবি-র তরফে বলা হচ্ছে, তাৎক্ষণিক তালাকে অভিযুক্ত ব্যক্তির অপরাধ প্রমাণিত হলে যদি তাকে তিন বছরের জন্য জেলে পাঠানো হয়, তা হলে স্ত্রী ও সন্তানদের ভরণ-পোষণের দায়িত্ব নেওয়া তার পক্ষে সম্ভব হবে না। ভরণ-পোষণ এবং কারাদণ্ড একসঙ্গে চলতে পারে না বলে বোর্ডের মত।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares