Main Menu

কাবাঘর ও মসজিদে নববির ছবি তোলায় নিষেধাজ্ঞা

+100%-

অনেক আগে থেকেই আলেম-উলামারা বলে আসছিলেন পবিত্র কাবা ও মসজিদে নববিতে ছবি উঠানো নিষেধ করা প্রসঙ্গে। পবিত্র এই দুই মসজিদসহ হজের আনুষ্ঠানিকতার সময় ছবি উঠানোর প্রবণতা রীতিমতো ভয়াবহ রূপ ধারণ করেছিলো। এবার তার পরিসমাপ্তি ঘটতে যাচ্ছে। সম্প্রতি পবিত্র কাবা ও মসজিদে নববিতে ছবি তোলায় নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে সৌদি সরকার।

ইসলামের অন্যতম পবিত্র স্থান মসজিদে নববিতে এক ইসরাইলি নাগরিক ছবি তুলে তা সামাজিক মাধ্যমে প্রচারের পর পবিত্র কাবাঘর ও মসজিদে নববি এবং এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় পর্যটকদের ছবি তোলার ওপর এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হলো।

১২ নভেম্বর দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ সিদ্ধান্ত দিয়েছে বলে বৃহস্পতিবার তথ্য ও গণমাধ্যম বিভাগের মহাপরিচালক এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর ডেইলি সাবাহর।

বিবৃতিতে উল্লেখ করা হয়েছে, পবিত্র কাবাঘর ও মসজিদে নববির পবিত্রতা রক্ষা এবং এর মর্যাদা অক্ষুণ্ণ রাখতে এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।  ওই এলাকায় ছবি তোলা ও ভিডিও ধারণের কারণে ইবাদত-বন্দেগিরতদের নানাবিধ সমস্যা হয়।

এ সিদ্ধান্তের ফলে এখন থেকে কাবাঘর ও মসজিদে নববি এবং এর পার্শ্ববর্তী এলাকায় কোনো পর্যটক আর ছবি তুলতে পারবেন না।
গণমাধ্যম বিভাগের মহাপরিচালক বলেন, নতুন এ নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। নির্ধারিত এলাকায় কোনো প্রকার ক্যামেরা বা ছবি ও ভিডিও ধারণের যন্ত্র নিয়ে গেলে তা জব্দ করা হবে।
উল্লেখ্য, ইসলাম ধর্মের সর্বোচ্চ পবিত্র স্থান কাবাঘর এবং মসজিদে নববি। এ দুই স্থানে মুসলমান ব্যতীত অন্যদের প্রবেশ নিষেধ। কয়েকদিন আগে ইহুদি ব্লগার রাব্বি বিন তিসইউন ইরান, জর্ডান আর লেবানন হয়ে গেলেন সৌদি আরব যান। পরে তিনি প্রবেশ করেন মসজিদে নববিতে। বিন তিসইউন মসজিদে নববির ভেতরে ছবি তুলে টুইট করেন। বিষয়টি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক সৃষ্টি হওয়ার পর সৌদি কর্তৃপক্ষ এ সিদ্ধান্ত নেয়।






Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked as *

*

Shares